বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo তাহারা কি আই‌নের উ‌র্দ্ধে ? ফ‌রিদুল মোস্তফা Logo কালকিনি (মাদারীপুর) উপজেলার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী খাসেরহাট সৈয়দ আবুল হোসেন স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান -২০২৪ অনুষ্ঠিত Logo মাদারীপুর ৩ আসনের এমপি মোছাম্মৎ তাহমিনা বেগমের আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিমের সাথে ঈদ পরবর্তী সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় Logo মাদারীপুরের কালকিনির রমজানপুর ইউনিয়নে “আব্দুর রব তালুকদার -মাহমুদা বেগম ফাউন্ডেশন” এর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ Logo ঢাকাসহ ৭ অঞ্চলে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আভাস Logo বাড়ি ফিরছে মানুষ, ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা Logo গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত শহর হারাল মিয়ানমার জান্তা, বাঁচলো আত্মসমর্পণ করে Logo ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় Logo আমিরাতে সোমবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার আহ্বান Logo ঈদের আগে বাড়লো মুরগির দাম

আখেরী নবী (স:)র ওফাত দিবস আজ

এখনই সময় ডেস্ক / ১০৬
আপডেট : রবিবার, ৯ অক্টোবর, ২০২২, ১২:৪২ অপরাহ্ণ

আরবি হিজরি সনের রবিউল আউয়াল মাসের ১২ তারিখে মানব মুক্তির পথ প্রদর্শক, বিশ্ব শান্তির দূত, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব বিশ্বনবী রাসূলে পাক হযরত মুহাম্মদ মুস্তাফা সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এঁর জন্ম এবং মৃত্যুবার্ষিকী। যদিও ইসলামী ইতিহাসের গবেষকদের মাঝে বিশ্বনবীর (সঃ) জন্মদিন নিয়ে বিস্তার মতভেদ রয়েছে। কারণ, এ সম্পর্কিত কোনো অকাট্য দলিল কোরআন এবং সহীহ হাদিসে উল্লেখ নেই। তৎকালীন সময়ে জন্মদিন পালনের কোনো রেওয়াজ ছিল না।

অন্ধকারাচ্ছন্ন পৃথিবীকে আলোকিত করতে এবং মানুষকে সত্য, ন্যায় ও পরকালীন মুক্তির পথ দেখাতে ৫৭০ খ্রিস্টাব্দে মতান্তরে ৫৭১ খ্রিস্টাব্দে ১২ রবিউল আউয়াল মতান্তরে রবিউল আউয়াল মাসের কোনো এক সোমবার মক্কা নগরীর কুরাইশ বংশে জন্মগ্রহণ করেন বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ মুস্তাফা সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। মহানবী (সঃ)-এঁর সঠিক জন্মবার্ষিকী নিয়ে মতপার্থক্য থাকলেও তাঁর ওফাত দিবস (মৃত্যুবার্ষিকী) নিয়ে কোনো ইসলামী চিন্তাবিদ, ইতিহাসবিদ কিংবা গবেষকদের মধ্যে বিন্দুমাত্র দ্বিমত নেই। তিনি ইংরেজি ৬৩২ খ্রিস্টাব্দ তথা আরবি ১১ হিজরি সনের ১২ রবিউল আউয়াল সোমবার মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে প্রত্যাবর্তন করেন অর্থাৎ ওফাত লাভ করেন।

সুতরাং আজ ১২ রবিউল আউয়াল বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ মুস্তাফা সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এঁর জন্মদিন কিনা সেটা শতভাগ নিশ্চিত হওয়া না গেলেও (একমাত্র আল্লাহ জানেন) আজ ১২ রবিউল আউয়াল যে তাঁর ওফাত দিবস (মৃত্যুবার্ষিকী) তাতে বিন্দুমাত্র সন্দেহের অবকাশ নেই। সুতরাং আজকের দিন মুসলমানদের জন্য কোনো আনন্দের দিন হতে পারে না। আজকের দিনটি সমগ্র মুসলিম উম্মাহর জন্য গভীর শোক এবং বেদনার একটি দিন। ঈদ মানে যদি আনন্দ হয় তাহলে এমন একটি বেদনাবিধুর দিনে ঈদে মিলাদুন নবী নামে বিশ্বনবী (সঃ)-এঁর জন্মদিন পালন করা কতটা যৌক্তিক? কতটা ইসলামী শরীয়ত সম্মত? ইসলামী স্কলার এবং বুজুর্গদের কাছে এই প্রশ্ন রেখে আমার লেখাটা শেষ করলাম।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD