বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৫৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
Logo তাহারা কি আই‌নের উ‌র্দ্ধে ? ফ‌রিদুল মোস্তফা Logo কালকিনি (মাদারীপুর) উপজেলার বাঁশগাড়ী ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী খাসেরহাট সৈয়দ আবুল হোসেন স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান -২০২৪ অনুষ্ঠিত Logo মাদারীপুর ৩ আসনের এমপি মোছাম্মৎ তাহমিনা বেগমের আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিমের সাথে ঈদ পরবর্তী সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় Logo মাদারীপুরের কালকিনির রমজানপুর ইউনিয়নে “আব্দুর রব তালুকদার -মাহমুদা বেগম ফাউন্ডেশন” এর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ Logo ঢাকাসহ ৭ অঞ্চলে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আভাস Logo বাড়ি ফিরছে মানুষ, ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা Logo গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত শহর হারাল মিয়ানমার জান্তা, বাঁচলো আত্মসমর্পণ করে Logo ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় Logo আমিরাতে সোমবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার আহ্বান Logo ঈদের আগে বাড়লো মুরগির দাম

ডাকাত আতঙ্ক‌ে রাত জেগে গ্রামবাসীর পাহারা

গৌরাঙ্গ দাস কোটালীপাড়া / ১৭৯
আপডেট : রবিবার, ৭ আগস্ট, ২০২২, ৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ

জাগো জাগো গ্রামবাসী জাগো, হুশিয়ার সাবধান।
এমন ভাবে ডাক দিয়ে রাতে পাহারা দিচ্ছেন কোটালীপাড়া পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ড তাড়াসি এলাকা পাহারাদাররা। কোটালীপাড়া পৌরসভা এলাকায় পাহারা দিচ্ছেন দলবদ্ধভাবে গ্রামবাসী। শনিবার রাত ১২ দিকে কোটালীপাড়া পৌরসভার তাড়াশী বাস স্ট্যান্ড এলাকায়গিয়ে দেখা যায় চুরি ডাকাতি বেড়ে যাওয়ায় কোটালীপাড়া উপজেলা প্রতিটি এলাকায় গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে এমন পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

রাত দশটা থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত দলবদ্ধ ভাবে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। কোটালীপাড়া পৌরসভা ৯ নং ওয়ার্ডের তারাশি এলাকায় সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে বাস লাঠি বাঁশি টর্চ লাইট নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। সন্দেহজনক কাউকে দেখা গেলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গ্রামবাসী এভাবে রাতে বাজার এলাকায় পাহারা দেওয়ায় কোন চুরি ডাকাতি সংগঠিত হচ্ছে না। কোন অবৈধ কোন কিছু বাজারে প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে না। এভাবে প্রতিটি গ্রামের মানুষ সজাগ থাকলে চুরি ডাকাতি সহ নানা অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধ হয়ে যাবে মনে করছেন স্থানীয়রা। তাড়াশি এলাকায় মোঃ পলাশ তালুকদার বলেন বিভিন্ন পয়েন্টে পয়েন্টে গ্রামবাসী পাহারা দেওয়ার কারণে এখন আর চুরি ডাকাতি হয় না ছিনতাই এর ঘটনা ঘটে না। ব্যবসায়ীরা রাতে দোকানপাট বন্ধ করে অনেকটা নিরাপদ নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন।

এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পয়েন্টে পাহারা বসানো হয়েছে তাদের পাশাপাশি পুলিশ গ্রাম পুলিশ নাইটগার্ড কাজ করছেন। এভাবে সজাগ থাকলে চুরি-ডাকাতি নয় মাদক পাচারও বন্ধ হয়ে যাবে বলে মনে করছেন তিনি।
কোটালীপাড়া থানার ওসি মুহাম্মদ জিল্লুর রহমান বলেন চুরি ডাকাতি ও মাদক পাচার প্রতিরোধে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় প্রতিটি ইউনিয়নে স্থানীয় প্রতিনিধি ও গ্রামবাসীর সমন্বয়ে বৈঠক করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি এলাকায় রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন তারা। গ্রামবাসীর অংশগ্রহণে রাতের বেলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করার কাজ অনেক সহজ হয়েছে। এভাবে প্রত্যেকটি গ্রামের মানুষ সজাগ থাকলে চুরি ডাকাতি ছিনতাই এর ঘটনা বন্ধ করনে অনেকটা সহজ হবে। কমবে অপরাধ মূলক কর্মকাণ্ড। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সকলের সহযোগিতা কামনা করছেন তিনি।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD