বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:০৯ অপরাহ্ন

দুর্বৃত্তায়ন মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লেখালেখি করে ষড়যন্ত্রের শিকার সাংবাদিক ও লেখক আবুল কালাম আজাদ

ইসমাইল ইমন (চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি) / ৪৬
আপডেট : বুধবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২২, ৮:২৬ অপরাহ্ণ

সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশের অপরাধ ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার এক সুপরিচিত নাম। সমাজের নানা অসঙ্গতি, দুর্বৃত্তায়ন, মাদক-সন্ত্রাস, কিশোর অপরাধ সহ তথ্যনির্ভর অসংখ্য সংবাদ প্রকাশ করেছেন অত্যন্ত সাহসিকতার সাথে।

কখনো কোনো অন্যায় বা অপশক্তির কাছে মাথানত করেননি তিনি। সমসাময়িক বিষয় নিয়ে লিখেছেন বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় বই, তারমধ্যে অন্যতম “ঘুমন্ত বিবেক ও বাণিজ্যিক মানবতা” স্বপ্নভঙ্গের আর্তনাদ। এছাড়াও তিনি দৈনিক আজকের আলোকিত সকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও সার্ক জার্নালিস্ট ফোরাম বাংলাদেশ চ্যাপ্টার প্রেসিডেন্ট এর দায়ীত্ব পালন করছেন।

সংবাদ প্রকাশের জেরে সম্প্রতি সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদকে হত্যার হুমকি সহ নানা ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে একটি কুচক্রি মহল। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার সন্ত্রাসী হামলার শিকারও হয়েছেন তিনি, যা দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় প্রকাশিত হয়েছে। ২০১৯ সালের ১২ মার্চ ভোলার দৌলতখানের কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী খলিল গংদের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করলে, মাদক ব্যবসায়ীদের পক্ষ নিয়ে আজাদকে হুমকি প্রদান করেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা খায়রুল ইসলাম খোকন।

এ ঘটনার কিছুদিন পর ২০১৯ সালের ১৫ মে বেলা ১২ ঘটিকায় বাড্ডায় নিজ বাসভবনের সামনে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয়ে মারাত্মক আহত হন তিনি, উক্ত ঘটনায় সেসময় সোস্যাল মিডিয়ায় তুমুল আলোচিত হয়েছিল বিষয়টি। বাড্ডা থানায় বিষয়ে উক্ত বিষয়ে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার পাননি সাংবাদিক আজাদ।

২০২০ সালের ৩১ মার্চ ভোলার বোরহাউদ্দিনের বড় মানিকা ইউপি চেয়ারম্যান জসিম হায়দারের ছেলে নাবিল কর্তৃক অমানুষিক নির্যাতনের শিকার হন স্থানীয় সাংবাদিক সাগর। এ ঘটনায় আবুল কালাম আজাদ সর্বপ্রথম ফেসবুকে প্রতিবাদ জানালে, সারাদেশে বিষয়টি তুমুল আলোচিত হয় এবং চেয়ারম্যান পুত্র নাবিল গ্রেফতার হয়।

উক্ত ঘটনার জেরে চেয়াম্যানের ষড়যন্ত্রে দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকায় আজাদের বিরুদ্ধে একটি ভুয়া সংবাদ প্রকাশিত হলে, দেশের বিভিন্ন স্থানে দৈনিক সময়ের আলো পত্রিকার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করে বেশ কয়েকটি সাংবাদিক ও সামাজিক সংগঠন। সম্প্রতি ভোলার বোরহানউদ্দিনের সাংবাদিক মিজানকে নির্যাতন করে উপজেলার পক্ষিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন সর্দারের সন্ত্রাসী বাহিনী। উক্ত ঘটনায়ও পুর্বের ন্যায় আবুল কালাম আজাদ জোরালো প্রতিবাদ জানান। এতে ক্ষিপ্ত হন চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন সর্দার ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আজাদকে হুমকি সহ নানা অপপ্রচারে লিপ্ত হয়।

এ সম্পর্কে সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ জানান, আমি জীবনের নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। সংবাদ প্রকাশের জেরে বারবার আমার উপরে আক্রমণ হচ্ছে, আমাকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্র হচ্ছে। বারবার প্রশাসনের সাহায্য চেয়েও ব্যর্থ হচ্ছি। অজ্ঞাত কারণে সন্ত্রাসী ও দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেনা প্রশাসন।
আমি গণমাধ্যম সহ প্রশাসনের সহায়তা কামনা করছি।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD