শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন

পূর্ণতার পথে মেট্রোরেল

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১০৩
আপডেট : শনিবার, ৮ জুলাই, ২০২৩, ১২:১২ অপরাহ্ণ

পূর্ণতার পথে আরেক ধাপ এগিয়েছে রাজধানীর উত্তরা দিয়াবাড়ী থেকে কমলাপুর পর্যন্ত নির্মাণাধীন মেট্রোরেল (এমআরটি-৬) রুট। দেশের প্রথম এ মেট্রোরেলের দিয়াবাড়ী থেকে আগারগাঁও অংশে ছয় মাস ধরে যাত্রী নিয়ে চলছে ট্রেন। গতকাল শুক্রবার আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত পরীক্ষামূলক ট্রেন যাত্রার অংশ হিসেবে করা হয় পারফরম্যান্স টেস্ট।

আগারগাঁও স্টেশনে শুক্রবার বিকেল ৪টা ৩৫ মিনিটে সবুজ পতাকা উড়িয়ে এর উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। উদ্বোধন অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পারফরম্যান্স দেখার পর হবে সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন টেস্ট। এরপর ফাংশনাল টেস্ট শেষে হবে ট্রায়াল রান। এ ধাপে সফলতা শেষে যাত্রী নিয়ে চলবে ট্রেন।

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে এসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা। অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমআরটি-৬ লাইনের আগারগাঁও-মতিঝিল অংশে ট্রেন চলাচল উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

জাপানের আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থার (জাইকা) ঋণে ৩৩ হাজার ৪৭২ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন এমআরটি-৬ প্রকল্প ২০১২ সালে সরকারের অনুমোদন পায়। তখন পরিকল্পনা অনুযায়ী দিয়াবাড়ি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ২০ দশমিক ১ কিলোমিটার উড়াল রেলপথ নির্মাণের পরিকল্পনা ছিল। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এমআরটি-৬ লাইন মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত ১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার বর্ধিত করা হয়।

প্রকল্প পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে মতিঝিল পর্যন্ত যাত্রীবাহী ট্রেন চলার কথা। মেট্রোরেলের নির্মাণ ও পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সরকারি কোম্পানি ডিএমটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম, এ, এন, ছিদ্দিক জানিয়েছেন, নির্ধারিত সময়ের দুই মাস আগেই ট্রেন চলবে। কমলাপুরে মেট্রোরেল যাবে ২০২৫ সালের জুনে।

রাজধানীর যানজট নিরসনে পাতাল, উড়ালসহ আরও পাঁচটি মেট্রোরেল লাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে সবক’টির নির্মাণকাজ শেষ হবে। তিনি বলেছেন, মেট্রোরেল শেখ হাসিনা সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ মেগাপ্রকল্প। আগারগাঁও-মতিঝিল অংশে পরীক্ষামূলক যাত্রার মাধ্যমে আরেকটি মাইলফলক অর্জিত হতে যাচ্ছে।

গত ২৮ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করার পর থেকে ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার দীর্ঘ দিয়াবাড়ি-আগারগাঁও অংশে চলছে ট্রেন। ধাপে ধাপে এ অংশের ৯টি স্টেশন চালু হয়েছে। আজ শনিবার সকাল ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত শুরু হচ্ছে ট্রেন চলাচল। শুক্রবার সাপ্তাহিক বন্ধ। ওবায়দুল কাদের জানান, আগারগাঁও-মতিঝিল অংশে পরীক্ষামূলক ট্রেন চলাচল করবে রাতে এবং শুক্রবারে।

পারফরম্যান্স টেস্টের প্রথম যাত্রায় ট্রেনে যাত্রী ছিল না, শুধু চালক ও ডিএমটিসিএলের প্রকৌশলীরা চড়েন। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পারফরম্যান্স টেস্টে ধীরগতিতে চালিয়ে বিদ্যুৎচালিত ট্রেনের অবস্থা যাচাই করা হবে। সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন টেস্টে রেললাইন, ট্রেন এবং বিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনা যাচাই হবে। ফাংশনাল টেস্টে যাত্রীর সমান ভর তুলে ট্রেন চালানো হবে। এরপর ট্রায়াল রানে মানুষ নিয়ে চলবে ট্রেন। নিরাপত্তার স্বার্থে এসব পরীক্ষা করতে হবে। আগারগাঁও-দিয়াবাড়ি অংশে প্রায় দেড় বছর লেগেছিল পরীক্ষা-নিরীক্ষায়। আগারগাঁও-মতিঝিল অংশে লাগবে মাত্র তিন মাস।

আগারগাঁও-মতিঝিল অংশের দৈর্ঘ্য ৮ দশমিক ৩৭ কিলোমিটার। এ পথে স্টেশনের সংখ্যা সাতটি। সড়ক পরিবহনমন্ত্রী জানিয়েছেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে প্রথম পর্যায়ে ফার্মগেট, সচিবালয় ও মতিঝিল স্টেশনে থেমে চলবে ট্রেন। ধাপে ধাপে চালু হবে বাকি স্টেশন।

পারফরম্যান্স টেস্টের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের জানান, আগারগাঁও-মতিঝিল অংশে কাজের অগ্রগতি হয়েছে ৯৫ শতাংশের বেশি। বিজয় সরণি থেকে মতিঝিল পর্যন্ত ছয়টি স্টেশনের কাজের অগ্রগতি ৯৪ থেকে ৯৮ শতাংশ। মতিঝিল থেকে কমলাপুর অংশে পূর্ত কাজ এগিয়েছে ৯ শতাংশ।

মেট্রোরেল চালুর পর উত্তরা, পল্লবী, মিরপুর এলাকার যাত্রীরা নির্বিঘ্নে আসতে পারছেন আগারগাঁও। মতিঝিল পর্যন্ত চালু হলে রাজধানীর ব্যস্ততম এ পথে যানজটের ভোগান্তি ছাড়াই দিনে ৫ লাখ যাত্রী চলতে পারবেন। ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগারগাঁও-দিয়াবাড়ি অংশে বর্তমানে দিনে গড়ে ৭০ হাজার যাত্রী চলাচল করছেন। দৈনিক গড় আয় ২৬ লাখ টাকা।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী, ডিএমটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম, এ, এন, ছিদ্দিক, এমআরটি-৬ প্রকল্পের পরিচালক আফতাব উদ্দিন তালুকদারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD