শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন

মিরাজকে প্রশংসায় ভাসালেন তাইজুল

নিজস্ব প্রতিবেদক / ২৭
আপডেট : রবিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ

চলছিল শনিবার সিলেট পর্বের শেষ দিনের প্রথম ম্যাচ। এ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল চলমান আসরের টেবিল টপার্স খুলনা টাইগার্স ও তামিম ইকবালের দল ফরচুন বরিশাল। এ ম্যাচে আগে ব্যাট করে ১৫৫ রানের সংগ্রহ করে বিজয়ের খুলনা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে খানিকটা বিপাকের পরে বরিশাল। ম্যাচের শেষ অবদি বরিশালের সামনে এক ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৮ রান। 

বল হাতে লঙ্কান অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার দাসুন শানাকা। আর তার ওপর ঝড় তোলেন বরিশালের দুই অলরাউন্ডার শোয়েব মালিক ও মেহেদি হাসান মিরাজ। মূলত শেষ দিকে ক্যামিওটা দেন মিরাজই। তিনি খেলেন ১৫ বলে তিন ছক্কা ও ১ চারে ৩১ রানের ইনিস। এমন জয়ের পর তাই সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হিসেবে এসে মিরাজকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন বরিশালের স্পিন বোলার তাইজুল ইসলাম। গতকাল ম্যাচ-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসে মিরাজকে নিয়ে তাইজুল বলেন, ‘খেয়াল করবেন যে, মিরাজকে আজই এমন ইনিংস খেলেছে তা না। বিগত দিনগুলোতেও করেছে। এটা দলের জন্য ভালো। আমার কাছে মনে হয়  সে ঐ রকম পরিস্থিতিতে এরকম ইনিংস খেলা অবশ্যই এটা বড় ক্রিকেটারের লক্ষ্য।’

এদিকে শেষ ওভারের উত্তেজনার ঐ সময়ে বরিশালের ডাগ আউটে কয়টা বাউন্ডারি মারলে দল জিতবে তার হিসাব কষা হয়েছিল কি না, জানতে চাইলে তাইজুল জানান, ‘এরকম কথা তো স্বাভাকিভাবে হয়েই থাকে। দেখা যায় যখন এরকম পরিস্থিতি আসে তখন আমরা চিন্তা করি এক ওভারে তিনটা ছক্কা দরকার…তখন চিন্তা করি যে হয়তো প্রথম বলে যদি একটা ছক্কা আসে তো আমাদের জন্য সুবিধা হবে আর ব্যাটারের জন্যও আত্মবিশ্বাস আসে।’ এসময় ব্যাটিংয়ে থাকা মালিক-মিরাজের ওপর ভরসা ছিল নাকি—প্রশ্ন করা হলে এই স্পিনার বলেন, ‘ক্রিকেটে এমন পরিস্থিতি অনেক আসবে। ডাগআউটের কথা বললে বলতে হয় আমরা ৭০ ভাগ ব্যাকফুটে ছিলাম এই ম্যাচে, ১২-১৩ ওভার থেকে যদি দেখেন। তো সে জায়গা থেকে এরকম কামব্যাক, মিরাজ-মালিক ভাইয়ের দুর্দান্ত ইনিংস। টেনশনও কাজ করছিল, বলব না যে টেনশন ছিল না। প্রত্যেকের একটা চিন্তা  ছিল যে জিতব কি, জিতব না-এরকম একটা মুহূর্ত ছিল।’

এদিকে এমন টানটান উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচের পর সিলেটের উইকেট সম্পর্কে নিজের মতামত দিয়ে বরিশালের স্পিনার তাইজুল ইসলাম বলেন, ‘এখানে গত কয়েক দিন ধরে খেলা হচ্ছে এ উইকেটে। একই উইকেটে বেশ কয়েকটা খেলা হলে ওই উইকেট স্বভাবতই একটু ধীরগতির হয়। এজন্যই হয়ত আমাকে খেলানো।’ এছাড়া উইকেটকে বেশ কঠিন মনে হয়েছে তাইজুলের। এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এটা (ধীরে রান তোলা) দলের ভেতরের বিষয়। তবুও দেখতে হবে উইকেট কেমন আচরণ করে বা পরিকল্পনা কীভাবে সেটআপ করছেন। আজকের উইকেট কিন্তু সহজ উইকেট তা কিন্তু না। উইকেট খুব কঠিন ছিল। প্রথমদিকে আমাদের পরিকল্পনা ভালোই ছিল, মাঝের দিকে একটু এদিক-সেদিক হওয়ায় হয়তো শেষদিকে ঐ রকম টার্গেট চলে আসছে। তারপরও একটা দল যখন খেলবে তখন এরকম সিচুয়েশন আসবেই। তা কীভাবে আমরা হ্যান্ডেল করি এটা হলো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।’


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD