শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৮:৩৭ পূর্বাহ্ন

শ্রীবরদীর সোমেশ্বরী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন  

আরএম সেলিম শাহী, শেরপুর প্রতিনিধি। / ১৮১
আপডেট : শুক্রবার, ৮ এপ্রিল, ২০২২, ২:৪৭ অপরাহ্ণ

শেরপুরের সীমান্তবর্তী শ্রীবরদী উপজেলার ভারত থেকে বয়ে আসা পাহাড়ি নদী সোমেশ্বরী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।   
জানা গেছে, স্থানীয় বালুদস্যুরা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছে। সরেজমিনে অনুসন্ধানে গিয়ে দেখা গেছে, সোমেশ্বরী নদীর বালিজুরি, খাড়ামুড়া, রাঙ্গাজান,তাওয়াকোচাসহ বিভিন্ন স্থানে শ্যালোইঞ্জিন চালিত ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আবার কোন কোন স্থানে সরাসরি নদীর মাঝ খান থেকে ট্রাক ও মাহিন্দ্র যোগে চর কেটে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। কোন কোন স্থানে নদীর পার কেটে ও অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। বালুদস্যুরা প্রতিদিন লাখ লাখ টাকা মুল্যের বালু উত্তোলন করে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে আসছেন।
সোমেশ্বরী নদীর শ্রীবরদী উপজেলার খাড়ামুড়া ভারত বাংলাদেশ সীমান্তের জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত বসানো হয়েছে বালু উত্তোলন যন্ত্র। অবাধে বালু উত্তোলনের ফলে বিভিন্ন স্থানে দেখা দিয়েছে নদী ভাঙ্গন। খাড়ামুড়া গ্রামের সাইফুল ইসলাম, আব্দুল কুদ্দুস, তাওয়াকোচা গ্রামের মোরশেদ, মোতালেবসহ গ্রামবাসাীরা  জানান,অবাধে বালু উত্তোলনের ফলে খাড়ামুড়া গ্রামটি এখন হুমকির সম্মুখিন। ক্ষতবিক্ষত হয়ে পরেছে নদীর দুপাশে। শুধু তাই নয় অবৈধভাবে বালু লুটপাট করায় একদিকে পরিবেশের ভারসাম্য হুমকির সম্মুখিন হয়ে পরেছে। অপর দিকে সরকার বঞ্চিত হচ্ছে বিপুল পরিমাণের রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
শ্রীবরদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নিলুফা আক্তার বলেন ইতিপূর্বে বালু উত্তোলনকারিদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ধ্বংস করা হয়েছে বালু উত্তোলন যন্ত্র। আবারও অভিযান পরিচালনা করা হবে।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD