শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন

সিলেটে বন্যা অবনতি

এখনই সময় ডেস্ক / ১২০
আপডেট : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০২২, ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ

সিলেট অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতি দিন দিন অবনতি হচ্ছে

আজ ১৭ জুন সকাল নয়টা পর্যন্ত জেলার প্রধান দুই নদী সুরমা ও কুশিয়ারার বিভিন্ন পয়েন্টে পানি বেড়েছে। সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ৯৯ সেন্টিমিটার ও সিলেট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ২৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ছাড়া কুশিয়ারা নদীর ফেঞ্চুগঞ্জ পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ৩ সেন্টিমিটার এবং সারি নদের সারিঘাট পয়েন্টে পানি বিপৎসীমার শূন্য দশমিক ৩২ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এর বাইরে জেলার ছোট ছোট অন্যান্য নদ-নদীর পানিও ক্রমশ বাড়ছে।
সিলেটের বন্যার ওপর জায়ান্ট সার্চ ইঞ্জিন গুগল একটা অ্যালার্ট দিয়েছে। সেখানে গুগল দাবি করছে, আগামিকাল সকালের মধ্যে সুরমা নদীর পানি বর্তমান অবস্থা থেকে ১০-৫০ সেন্টিমিটার বাড়তে পারে।
তাহলে আঁচ করুন পরিস্থিতি, কোথায় গিয়ে দাড়াবে বন্যা পরিস্থ‌িতি ?

প্রকৃতি নস্ট করে কোনো উন্নয়ন হলে সেই উন্নয়ন টেকসই হয় না। হাওরে র পানি প্রবাহ নস্ট করে অলওয়েদার সড়ক বানাবেন, সেখানে গিয়ে সেলফি তুলবেন আর ডুববেন না তাতো হয় না।

সিলেটের পরিস্থিতি থেকে গোটা বাংলাদেশের শিক্ষা নেয়া উচিত। প্রাকৃতিক নদী, খাল, বিল, জলাশয় কোনভাবেই ভরাট করা যাবে না, পানি প্রবাহ নস্ট করা যাবে না।
এরশাদের আমলে ঢাকার সর্বশেষ খালগুলোর ওপর কালভার্ট করে নস্ট করেছে। এই খালগুলো সব নদীর সাথে যুক্ত ছিল। এরকম একটা খাল হলো সোনারগাও হোটেলের পেছনের হাতিরঝিল থেকে রাসেল স্কয়ার হয়ে ধানমন্ডি লেকে গিয়ে পড়ত।

গনমাধ্যম কর্মিরা জানান: আকাশছোয়া ভবন দেখে বোঝার উপায় নেই-সেখানে এক সময় প্রবাহমান খাল ছিল। এসব ভাঙ্গতে হবে। এসব ভবন ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিতে হবে। এটা কোনো কঠিন কাজ না।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD