রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
Logo মাদারীপুর ৩ আসনের এমপি মোছাম্মৎ তাহমিনা বেগমের আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিমের সাথে ঈদ পরবর্তী সৌজন্য সাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় Logo মাদারীপুরের কালকিনির রমজানপুর ইউনিয়নে “আব্দুর রব তালুকদার -মাহমুদা বেগম ফাউন্ডেশন” এর ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ Logo ঢাকাসহ ৭ অঞ্চলে ৮০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আভাস Logo বাড়ি ফিরছে মানুষ, ফাঁকা হচ্ছে ঢাকা Logo গুরুত্বপূর্ণ সীমান্ত শহর হারাল মিয়ানমার জান্তা, বাঁচলো আত্মসমর্পণ করে Logo ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় Logo আমিরাতে সোমবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখার আহ্বান Logo ঈদের আগে বাড়লো মুরগির দাম Logo ফিলিপাইনে অতিরিক্ত গরমে স্কুল বন্ধের নির্দেশ Logo মাদারীপুরের ডাসারে দরিদ্র অসচ্ছল অসহায় মানুষের বিশ্বস্ত ঠিকানা বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ আব্দুল মতিন ফাউন্ডেশন।

সৌদির আন্তর্জাতিক কুরআন প্রতিযোগিতার বিচারক বাংলাদেশি আলেম

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক / ৭৫
আপডেট : রবিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২৩, ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ

সৌদি আরবে চলমান আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় বিচারক নিযুক্ত হয়েছেন বাংলাদেশি আলেম হাফেজ মাওলানা ড. ওয়ালীয়ুর রহমান খান।তিনি ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের মুহাদ্দিস হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

৪৩তম বাদশাহ আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন ও তাফসির প্রতিযোগিতায় এবার ১১৭টি দেশের ১৬৬ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছেন। 

পাঁচটি ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মোট ৪০ লাখ সৌদি রিয়াল (১.০৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার) পুরস্কার দেওয়া হবে।২৫ আগস্ট শুরু হওয়া প্রতিযোগিতাটি চলবে যা আগামী ৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

সৌদি আরবের ইসলাম ও দাওয়াহ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে আয়োজিত আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতায় ড. ওয়ালীয়ুর রহমান খানকে বিচারক হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

সৌদি আরবের ইসলাম বিষয়ক মন্ত্রী শেখ আবদুল লতিফ আল শেখ এই প্রতিযোগিতার বিষয়ে বলেন, সারা বিশ্বের মুসলমানদের কুরআন মুখস্থ ও তেলাওয়াতের প্রতিযোগিতায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে এটি অনুপ্রাণিত করবে।
 

আন্তর্জাতিক হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সাফল্য ঈর্ষণীয় হলেও এসব প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশি আলেমদের বিচারক নিযুক্ত হওয়ার ঘটনা বিরল।

এ প্রসঙ্গে ড. ওয়ালীয়ুর রহমান খান যুগান্তরকে বলেন, আলহামদুলিল্লাহ, সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় উদ্যোগে আয়োজিত আন্তর্জাতিক এই প্রতিযোগিতায় আমাকে বিচারক হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে- এটি আমার এবং বাংলাদেশের জন্য অবশ্যই একটি সম্মানের বিষয়।আশা করি আগামীতে বাংলাদেশিদের এভাবে মূল্যায়ন অব্যাহত থাকবে। 

পাশাপাশি তিনি মাতৃভূমি বাংলাদেশ ও সৌদি আরব সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। 

ওয়ালীয়ুর রহমান খান বলেন, বাংলাদেশের শিশু কিশোররা পবিত্র কুরআনের হিফজ প্রতিযোগিতায় সারা বিশ্বে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করেছে। এ জন্য তাদের সম্মানিত শিক্ষক, মাতাপিতা, অভিভাবকদের যথেষ্ট কষ্ট স্বীকার ও ত্যাগ করতে হয়। হাজার হাজার হাফেজে কুরআনের মধ্য থেকে সর্বোত্তম ও উপযুক্ত হাফেজ বাছাইয়ের ক্ষেত্রে  ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই নির্বাচন প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা ও ন্যায়বিচার ইতোমধ্যে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ লাভ করে সর্বত্র প্রশংসিত হয়েছে। 
  
সংশ্লিষ্ট সবার আন্তরিক প্রচেষ্টা ও সমন্বিত উদ্যোগে বাংলাদেশ কুরআনুল কারীম চর্চা করে আজ প্রায় চল্লিশ বছর যাবত  বিশ্বজয়ের এই গৌরব ধরে রেখেছে। আলহামদুলিল্লাহ!  

বিগত ১৮ বছর যাবত ড. ওয়ালীয়ুর রহমান খান বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কুরআনুল কারীম হিফজ, তিলাওয়াত ও তাফসির প্রতিযোগিতার বাছাই পর্বে বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন। 

এছাড়া ওআইসি যুব কেরাত প্রতিযোগিতার বিভিন্ন অধিবেশনে এবং জাতীয় শিশু কিশোর কুরআন প্রতিযোগিতায় তিনি বিচারক হিসেবে সংশ্লিষ্ট সবার আস্থা ও ভালোবাসা  অর্জন করেছেন। 

ইতোপূর্বে তিনি মিসর, জর্দান, আলজেরিয়া ও সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত হিফজুল কুরআন ও বিভিন্ন  সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। 


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD