শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন

স্বরূপে অস্ট্রেলিয়া, কোন রূপে নিউজিল্যান্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৪৪
আপডেট : শনিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০২৩, ১০:০২ পূর্বাহ্ণ

প্রায় মাঝপথে চলে এলেও এবারের বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত শেষ বলে গড়ানো সত্যিকারের স্নায়ুক্ষয়ী ম্যাচ দেখা যায়নি। প্রায় সব ম্যাচই হচ্ছে একপেশে। ট্রান্স-তাসমান লড়াই কি সেই ধারায় ছেদটানতে পারবে? ধর্মশালায় আজ হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি তাসমান সাগরের দুই পাড়ের দুই পড়শি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। দুদলই দারুণ ছন্দে থাকায় হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আশা করাই যায়।

প্রথম পাঁচ ম্যাচের চারটিতে জিতে পয়েন্ট টেবিলের তিনে আছে নিউজিল্যান্ড। অন্যদিকে জোড়া হারে বিশ্বকাপ শুরুর পর টানা তিন ম্যাচ জিতে চারে উঠে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। সেমিফাইনালের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যেতে বন্ধুদের লড়াইয়ে দুদলেরই চোখ জয়ে। ওয়ানডে বিশ্বকাপে দুই পড়শির মুখোমুখি লড়াইয়ে ৮-৩ ব্যবধানে এগিয়ে অস্ট্রেলিয়া।

ভারত-পাকিস্তানের মতো উত্তাপ না ছড়ালেও এ দুদলের লড়াইয়েও থাকে ঝাঁজ। সেটি ২২ গজে সীমাবদ্ধ থাকার কারণটা কাল ব্যাখ্যা করলেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক প্যাট কামিন্স, ‘আমার মনে হয়, কিউইদের অধিকাংশই শান্ত প্রকৃতির, আমরাও তাই। একসঙ্গে অনেক ক্রিকেট খেলেছি আমরা। তাদের কয়েকজন আমাদের বেশ ভালো বন্ধুও। তবে মাঠের লড়াইয়ে আপনি বন্ধুকে আরও বেশি করে হারাতে চাইবেন। মাঠে তাই উত্তাপ থাকে।’

প্রথম দুই ম্যাচে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে হারের পর আগ্রাসী ক্রিকেট খেলেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া। টানা দুই ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছেন ডেভিড ওয়ার্নার। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৩০৯ রানের রেকর্ডরাঙা জয়ের ম্যাচে বিশ্বকাপ ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরি (৪০ বলে) রেকর্ড গড়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। পেসাররা ফিরেছেন ছন্দে।

স্পিনার অ্যাডাম জাম্পা টানা তিন ম্যাচে নিয়েছেন চারটি করে উইকেট। এই রেসিপিতে আস্থা রেখে আজও আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলার ঘোষণা দিয়েছেন কামিন্স। এখানেই ভয় নিউজিল্যান্ডের। টানা চার জয়ের পর সবশেষ ম্যাচে তারা হেরেছে স্বাগতিক ভারতের কাছে। জয়যাত্রায় ছেদ পড়ায় একটু তো ধাক্কা লাগারই কথা।

নিউজিল্যান্ডের ব্যাটার-বোলাররা ভালো করলেও কেউই এখনো পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মতো চোখ ধাঁধানো কিছু করতে পারেননি। স্বরূপে ফেরা অস্ট্রেলিয়াকে থামাতে তাই নিজেদের সেরাটা দেওয়ার কোনো বিকল্প দেখছেন না নিউজিল্যান্ডের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক টম লাথাম, ‘ট্রান্স-তাসমান লড়াই সত্যিই বিশেষ কিছু। বিশ্বকাপে সেটি আরও স্পেশাল। অস্ট্রেলিয়ার শুরুটা ভালো না হলেও শেষ তিন ম্যাচে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেছে তারা। এটাই আমাদের চেনা অস্ট্রেলিয়া। তাদের থামাতে শতভাগই দিতে হবে আপনাকে।’


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD