সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১২:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

বিএফইউজে সভাপতির জামিন না মঞ্জুর আদালতে প্র‌েরণ

এখনই সময় ডেস্ক / ৭৮
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২০, ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ

এখই  সময়  :   আজ বিকাল ৩:৩৫ মিনিট হতে ৩:৫৫ মিনিট পর্যন্ত হাতিরঝিল থানার নন এফ আর মামলা নং- ১৪৪/২০, ধারা:- ১২৪-ক  P.C, সিএমএম  আদালত নং ৮  এর বিচারক  জনাব “দেবদাস চন্দ্র অধিকারী” সাহেবের এজলাসে শুনানি হয়।  উক্ত মামলাটি ১৪/১২/২০১৯ ইং মোঃ আফজাল(৬৮) এর অভিযোগের ভিক্তিতে হাতিঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরী নম্বর-৬৫৯ মাধ্যমে তালিকাভুক্ত হয়।এতে ১/ মোঃ আবুল আসাদ(৭৮), ২/ মোঃ রুহুল আমিন গাজী(৬২), ৩/ সাহাত হোসেন(৬৫) মোট তিনজনে কে আসামী করা হয়।অভিযোগে বলা হয়,১২/১২/২০১৯ ইং তারিখে  উল্লেখিত বিবাদীগন পরস্পর  যোগসাজস করিয়া ‘দৈনিক সংগ্রাম’ পত্রিকার  প্রথম পাতায় ৩,৪ ও ৫ নং কলাম জুড়ে ব্লক লাইনে “শহীদ আব্দুল কাদের মোল্লার ৬ষ্ঠ শাহাদত বার্ষিকী আজ” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে এবং তারপক্ষে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা ও বানোয়াট  সংবাদ বিস্তারিত অংশে তুলে ধরেন।সংবাদের বিস্তারিত  অংশের একপর্যায়ে তাহাকে মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিংপ্রাপ্ত আখ্যা দিয়ে ” ২৩ মার্চ, ১৯৭১- এ মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার জেসিও মফিজুল রহমানের ডাকে এলাকার বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের সাথে মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিং- এ অংশগ্রহণ করেন আব্দুল কাদের  মোল্লা” মর্মে সংবাদ প্রকাশ করেন।যাহা আমি সকাল বেলা ৮:৩০ ঘটিকায় সময়  হামতিঝিল থানাধীন মধুবাগ বাজারের বিপরীত পাশ্বে আল আমিন ফার্মেসীর সামনে ফুটপাতে হকারের পত্রিকার দোকানে দেখতে  পাইয়া পত্রিকাটি আমি কিনিয়া নেই এবং বিস্তারিত পড়ি।আমি মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের একজন অতন্ত্র প্রহরী ৩৬ নং ওয়ার্ড  মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার,পিতা- মৃত আসলাম মিয়া, সাং- কিশলয় সংঘ,থানা- হাতিঝিল ডিমপি,ঢাকা,মনে করি যে,উল্লিখিত বিবাদীগন  মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় আঘাত করার লক্ষে এবং মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের ব্যক্তিদেরকে ক্ষেপিয়ে তুলে দেশের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি ঘোলাটে করার লক্ষে এ ধরনের উস্কানিমূলক সংবাদ প্রচার করে।যাতে প্রতিয়মান হয় যে,তাহারা এখনো দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব, দেশের সংবিধান অনুযায়ী  শান্তিপূর্ণভাবে যাহাতে চলিতে না পারে তাহার জন্য সকল প্রকার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হইয়া সরকারকে বেকায়দায় ফেলানোর চেষ্টায় সবসময়  সচেষ্ট রহিয়াছে। বিবাদীগণ পরস্পর  যোগসাজসে মুক্তিযুদ্ধের চেতানায় আঘাত করিয়া উস্কানিমূলক তথ্য  প্রচার করতঃ দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্বকে ও সংবিধানকে অস্বীকার করিয়া রাষ্ট্রদ্রোহীতার অপরাত করিয়াছে।থানা এলাকার সকল মুক্তিযোদ্ধাদের সহিত আলাপ আলোচনা করিয়া আমি উক্ত এজাহার দায়ের করি। উপরোক্ত অভিযোগের ভিক্তিতে অফিসার ইনচার্জ হাতিঝিল থানা,ডিএমপি্,ঢাকা হাতিঝিল থানার সাধারণ ডায়রী নং- ৬৫৯,তারিখ-১৪/১২/২০১৯ইং মূলে সাধারণ ডায়েরী এন্টি করেন।যেহেতু অভিযোগটি অধর্তব্য অপরাধ বিধায় বিজ্ঞ চীপ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট  বরাবর তদন্তের অনুমতি প্রাপ্ত হয়ে অভিযোগের প্রাথমিকভাবে সত্যতা পাওয়ায় প্রকাশ্য  আদালতে বিচারার্থে হাতিঝিল থানার নন- এফআইআর প্রসিকিউশন নম্বর ১৪৪/২০২০,তারিখ-০৮/০৯/২০২০ইং, ধারা-১২৪-ক পেলান কোড বিজ্ঞ আদালতে দাখিল করলাম।

মামলার শুনানিতে বিবাদী  পক্ষের সিনিয়র  এ্যাড,কামাল হোসেন     এ্যাড,আব্দুর রাজ্জাক সহ অনেকেই অংশগ্রহণ করে জামিনের প্রার্থনা করেন এবং আদালতকে  বলেন, এই মামলায় জনাব রুহুল আমিন গাজী  হাইকোট এবং সাইবার ট্রাইব্যুনাল থেকে চার সপ্তাহের জামিনের রয়েছেন, তিনি জামিনের কোন প্রকার শর্ত ভঙ্গ করেন নি।সে জামিন পাওয়ার আইনগত হকদার এবং উচ্চ আদালতের রায় ও তার শারীরিক দিক বিবেচনা করে  যে কোন শর্তে কিংবে জিম্মায় তাকে জামিন দেওয়ার জন্য আবেদন করেন। রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী জামিনের বিরুদ্ধতা করে বলেন,এটি অন্য আরেকটি জিডির নন এফআইআর মামলা,যা আসামী পক্ষের আইনজীবীদের  বর্ণনা করা মামলা নয়। ২০ মিনিটের শুনানি শেষে আদালত বলেন,পূর্বের মামলার ধারার সাথে মিল থাকলেও যেহেতু  ভিন্ন জিডির মামলা এটি বিধায় জামিন না মঞ্জুর করা হইল


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: