বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫৫ অপরাহ্ন

অপরিচিত জনকে “আপনি” করে বলা ভদ্রতা

এখনই সময় ডেস্ক / ২৭
আপডেট : বুধবার, ৫ মে, ২০২১, ৭:২৫ পূর্বাহ্ণ

 

 

হিমাংশু পাল

#অপরিচিতজনকে_আপনি_বলুন

বংশালে রিক্সাওয়ালাকে মারধর করা সুলতান আহমেদ সযতনে বেড়ে উঠছে আমাদের পরিবারে। অসহিষ্ণুতার যে ফসল আমরা পাচ্ছি সমাজক্ষেতে, তার বীজতলা তৈরি করেছি আমরাই।
আমি একটা মফস্বল শহরে থাকি। লকডাউনের আগে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকাকালীন মাঝে মাঝে ছেলেকে স্কুল থেকে আনতে যেতাম। বাহন অটোরিক্সা। বিভিন্ন সময় দেখেছি, বাবার বয়সী চালকদের কী নির্দ্বিধায় কলেজপড়ুয়া ছেলেরা ডাকছে- “ওই মামা, দাঁড়াও!”
অথচ ‘ও’ এর পরিবর্তে ‘ন’ থাকলে শব্দটা কতই না শ্রুতিমধুর হত! পরিবেশটাও কেমন স্নিগ্ধ হত!
মায়ের সঙ্গে রিক্সার জন্য প্রতীক্ষারত কিশোরকে মায়ের সামনেই রিক্সাওয়ালাকে ডাকতে শুনেছি- ”মামা, যাইবা!”
আমি দ্ব্যর্থহীনভাবেই বলতে পারি, ওই কলেজপড়ুয়া শিক্ষার্থী কিংবা স্কুলপড়ুয়া কিশোর একদিন সুলতান আহমেদই হবে।
আমার একজন আত্মীয়ের ঊনিশ বছর বয়সী ছেলেকে সুদৃশ্য রঙের একটা পালসার বাইক কিনে দিয়েছেন তার মা। প্রতিদিন বিকেলে সে যেভাবে বিকট শব্দে ‘নিড দ্য স্পিড’-এর চালকের মতো ময়মনসিংহ রোডে বাইক চালায়, অনুভব করি ওর মায়ের কলিজাটা না জানি কত বড়!

আগে যে বাসায় ভাড়া থাকতাম তার তিনতলায় থাকতেন একজন পঁয়ত্রিশোর্ধ্ব এনজিও কর্মকর্তা, উনার একজন চার বছরের সন্তান রয়েছে। বিকেলবেলা মাঝে মাঝে ছেলেটাকে নিয়ে গল্প করতে আসতেন ভাবি।
পাশের ঘর থেকে আমি শুনতাম, ভাবি আমার স্ত্রীকে বলছেন- “এত লিবারেল হইয়েন না বৌদি, আপনি ফুলুর মেয়ের সঙ্গে উৎসাহরে খেলতে দেন ক্যান? একসাথে খানও দেখি!
বাচ্চারা কী শিখবে?”
ইত্যাদি ইত্যাদি!!
ফুলু আপা আমাদের বাসায় সহায়ক মানুষ হিসেবে আমাদের পরিবারেরই একজন হয়ে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত থাকেন।

হ্যাঁ,
এখন একটু আত্মশ্লাঘার সময় এসেছে।
আমাদের সন্তানেরা ফুলু আপার ছেলেমেয়েদের সঙ্গে
একসঙ্গে খেলে,
আমাদের শিশুরা বয়সে বড় অপরিচিত যে কাউকে আপনি বলে সম্বোধন করে,
আমাদের সন্তানেরা মানুষকে মানুষ ভাবতে শিখছে।

একসঙ্গে একই সোফায় গৃহকর্মী কিংবা তার সন্তানদের নিয়ে টিভি দেখলে দুরন্ত টেলিভিশন আপনার নামে মামলা করবে না।
শ্রমজীবী অপরিচিত বয়োজ্যেষ্ঠজনকে আপনি বললে খুব বেশি ঠোঁটের ক্ষতি হবে না নিশ্চয়ই।

আসুন, নিজের সন্তানকে সুলতান বানাতে না চাইলে আজ থেকেই শিশুদের শেখাই-
‘অপরিচিতজনকে আপনি বলুন।’

কলাম লেখকঃ হিমাংশু পাল
সহকারী অধ্যাপক,
সরকারি সা’দত কলেজ, করটিয়া, টাঙ্গাইল।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
x
%d bloggers like this:
x
%d bloggers like this: