শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১১:৩৯ পূর্বাহ্ন

আমেরিকায় যাচ্ছে কচুরিপনার পন্য

এখনই সময় ডেস্ক / ৬৬
আপডেট : বুধবার, ১১ আগস্ট, ২০২১, ১:৫০ অপরাহ্ণ

এখনই সময়, গাইবান্ধা :

আমার জেলা গাইবান্ধা রসমঞ্জুরীর জেলা হিসেবে বিখ্যাত হলেও এখানে রয়েছে নানা ধরণের হস্ত ও কারুশিল্প। কচুরিপানার তৈরি হস্তশিল্প তার মধ্যে অন্যতম।

গাইবান্ধা শহর থেকে সাত কিলোমিটার দূরে অবস্থিত কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের মদনের পাড়ায় তৈরি হয় কচুরিপানার তৈরি হস্তশিল্প। এছাড়াও পাশের গ্রাম বাগুড়িয়া, হঠাৎ পাড়া, সমিতির বাজার গ্রামের অনেক নারীরা এখন কচুরিপানার তৈরি হস্তশিল্পের সাথে জড়িত হয়ে পরিবারে বাড়তি আয়ের যোগান দিচ্ছেন।

তাদের হাতে তৈরি কচুরিপানার ফুলের টব, হ্যান্ড ব্যাগ, পাপস, ভ্যানিটি ব্যাগ, মাদুর, ঝুঁড়িসহ ঘর সাজানোর বিভিন্ন সৌখিন সামগ্রী যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, কানাডা ও নেদারল্যান্ডসের মতো দেশগুলোতে।

কচুরিপানার তৈরি হস্তশিল্পের এই বিশাল কর্মযজ্ঞের মূল কারিগর মদনের পাড়া গ্রামের সুভাস চন্দ্র বর্মন।
সুভাস ২০০১ সালে গাজীপুরে বিডি ক্রিয়েশন নামের একটি হস্তশিল্প প্রতিষ্ঠানে চাকুরি নেন। সেখানে তিনি ২০০৮ সাল পর্যন্ত কচুরিপানার দিয়ে নানা ধরণের হস্তশিল্প তৈরির কাজ করেন ।

পরে ২০১৬ সালে নিজেই কচুরিপানা থেকে হস্তশিল্প তৈরির ব্যবসা শুরু করেন গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার মদনের পাড়ায় শ্বশুর বাড়িতে।

গাইবান্ধা জেলার সদর উপজেলার তালতলা, দাড়িয়াপুর ও ফুলছড়ি উপজেলার কঞ্চিপাড়া ইউনিয়নের মদনের পাড়ায় তিনি গড়ে তুলেছেন কচুরিপানা ভিত্তিক হস্তশিল্প তৈরির প্রশিক্ষণ কেন্দ্র।

কেন্দ্রগুলোতে প্রশিক্ষণ নিয়ে চারটি গ্রামের ২৫০ জন নারী ইতোমধ্যেই যুক্ত হয়েছেন এই পেশায়। এছাড়াও আশেপাশের গ্রামের অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থান তৈরী হয়েছে সুভাস চন্দ্রের হস্তশিল্পের এই উদ্যোগের ফলে। এই কাজের সাথে জড়িত সকলে দৈনিক আয়ের মাধ্যমে নিজ নিজ পরিবারকে আর্থিক ভাবে সাবলম্বী করতে পারছেন ঘরে বসেই।

স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, নারী, গৃহবধূ সহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ এখন এই হস্তশিল্পের সাথে জড়িত। সামগ্রিক ভাবে জেলার আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সুভাস চন্দ্র বর্মনের এই উদ্যোগ প্রশংশনীয় ভূমিকা পালন করছে।

ছবি- কচুরিপানার তৈরি ফুলের টব, গাইবান্ধা!
লেখা ও পোস্টঃ কামরুল হাসান
ভিডিও জার্নালিজম কোর্স । প্রথম ব্যাচ


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
x
%d bloggers like this:
x
%d bloggers like this: