সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ০১:১৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

চাচীর সাথে পরোকিয়ায় জড়িয়ে শেষ হলো জীবন দিয়ে

এখনই সময় ডেস্ক / ৭৯
আপডেট : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ

দুঃসম্পর্কের চাচির পরকীয়ায় জড়িয়ে জীবন দিলেন পিয়াল সাহা ২৪ নামের এক যুবক। জন্মদিনের প্রথম প্রহরে শুভেচ্ছা জানাতে না আসায় চাচি সম্পর্কের পরকীয়া প্রেমিকার সাথে অভিমান করে বিষপান করেন ওই যুবক।

তিন দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে শনিবার সকালে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন পিয়াল। বরিশাল নগরীর নবগ্রাম রোড খ্রিস্টান কলোনীর গোলপুকুর সংলগ্নের বাসিন্দা সুনিল সাহা’র ছেলে।

এছাড়া অভিযুক্ত পরকীয়া প্রেমিকা নিপা হাজরা একই কলোনীর প্রতিবেশী কাঠমিস্ত্রি এলভিস হাজরার স্ত্রী এবং দুই পুত্র সন্তানের জননী। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ নিপা হাজরার প্ররোচনায় বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন পিয়াল সাহা।

এই ঘটনায় আইনগত সহায়তা নিবেন বলে জানিয়েছেন নিহতের বড় ভাই রিয়াল সাহা। অপরদিকে, মৃত্যুর খবর পেয়ে শনিবার সকালে খ্রিস্টান কলোনী পরিদর্শন করেছে কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ। নিহতের পরিবার অভিযোগ বা মামলা করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আনোয়ার হোসেন।

নিহতের বড়ভাই রিয়াল সাহা জানিয়েছেন, ‘অভিযুক্ত নিপা এলভিস সম্পর্কে তাদের চাচি হন। পিয়াল সাহা শিশুকাল থেকে তাদের কাছেই বড় হয়েছে। সেই সুবাদে নিপার পরিবারের সবার সাথে তাদের সুসম্পর্ক।

এর মধ্যেই নিপা এবং পিয়াল পরকীয়ার সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। যেটা দীর্ঘ দিন গোপন থাকলেও সম্প্রতি কিছু লোকের মধ্যে প্রকাশ পায়। রিয়াল বলেন, ‘আমাদের কাছে দুজনের সর্বশেষ কথোপকথনের একটি কল রেকর্ড এসেছে। তাতে শোনা যাচ্ছে দুজনের মধ্যে মান অভিমান নিয়ে ঝগড়া হচ্ছে।

এসময় নিপা এলভিস তার মৃত্যু কামনা করেন এবং আত্মহত্যার প্ররোচনা জোগান। এই ঘটনার পরেই গত ১ সেপ্টেম্বর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন পিয়াল সাহা।

অভিযোগ প্রসঙ্গে চাচি সম্পর্কের পরকীয়া প্রেমিকা নিপা হাজরা বলেন, ‘আমার গ্রামের বাড়ি আগৈলঝাড়া উপজেলার বামরাইলে। ২০০৮ সালে এলভিস হাজরার সাথে পারিবারিক প্রস্তাবের মাধ্যমে বিয়ে হয়। সাংসারিক জীবনে আমাদের দুটি পুত্র সন্তানও রয়েছে। আমার বিয়ের পূর্বে থেকেই পিয়াল আমার শ্বশুর বাড়িতে থাকতো।

বিয়ের কয়েক বছর পর থেকেই পিয়াল আমাকে পছন্দ করে বলে নানাভাবে প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। আমি তাকে বরাবরই ফিরিয়ে দিয়েছি। তিনি বলেন, ‘সর্বশেষ চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে আমাদের মধ্যে একটি সম্পর্ক তৈরি হয়।

অনেকটা ব্লাকমেইল করেই পিয়াল আমাকে পরকীয়ায় বাধ্য করেছে। এমনকি একটি পর্যায় সে আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমি তাতে অস্বীকৃতি জানাই। এসব ঘটনা একমাত্র নিহতের বৌদি মলিনা সাহা জানেন। মাসখানেক পূর্বে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মলিনার সামনেই আমাকে মারধর করে পিয়াল।

নিপা বলেন, ‘গত ১ সেপ্টেম্বর পিয়ালের জন্মদিন ছিলো। এজন্য ৩১ আগস্ট রাত সাড়ে ৮টার দিকে পিয়াল আমাকে ফোন দিয়ে বলে, রাত ১২টা ১ মিনিটে ঘর থেকে বের হয়ে সর্বপ্রথম তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে হবে। আমি তার প্রস্তাবে সায় দেইনি। এজন্য ১ সেপ্টেম্বর সকালে পিয়াল আমাকে পুনরায় ফোন করে রাতে তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা কেন জানাইনি সে বিষয়ে প্রশ্ন করে।

এ নিয়ে আমাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায় সে আমাকে না পেলে আত্মহত্যা করবে বলে হুমকি দেয়। তখন আমিও রাগের মাথায় তাকে বলেছি ‘যা তুই মর গিয়ে’। এর কিছু সময় পরেই শুনতে পাই পিয়াল বিষপান করেছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পিয়ালের অপমৃত্যু মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক রেজাউল বলেন, ‘গত ১ সেপ্টেম্বর বিকাল পৌনে ৫টার দিকে বিষপান করা অবস্থায় পিয়ালকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকাল ৬টায় মৃত্যুবরণ করেন। এখন পর্যন্ত যতটুকু যেনেছি তাতে পরকীয়ার জেরে পিয়াল আত্মহত্যা করেছে। দুপুরে মৃতদেহের ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নবগ্রাম রোড ২ নম্বর হাউজিং খ্রিস্টানপাড়ার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের চেয়ারম্যান শান্তি রায় বলেন, ‘ইতোপূর্বে বিষয়টি আমি অবগত ছিলাম না। তবে মৃত্যুর পরে জানতে পেরেছি পরকীয়ার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে।

পরে বিষয়টি নিয়ে আমরা বসব। সে ক্ষেত্রে নিহতের পরিবার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আগ্রহী হলে সেটা তারা করতে পারে। তবে আমরা চেষ্টা করবো এই ঘটনার একটি সুষ্ঠু সমাধানের।

অপরদিকে, কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। নিহত এবং অভিযুক্তের পরিবারের সাথে কথা বলেছি। নিহতের স্বজনদের অভিযোগ প্রতিবেশী দুই সন্তানের জননীর প্ররোচনায় পিয়াল আত্মহত্যা করেছে। তবে অভিযুক্ত নিপা অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

তবে তাদের মধ্যে একটি সম্পর্ক ছিলো এটা প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ বিষয়ে নিহতের পরিবার মামলা বা অভিযোগ দিলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সুত্র: দেশপত্র


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: