বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০৯:৪১ পূর্বাহ্ন

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরে যারা দাত কেলিয়েছিল তারাও এখন দলের গুরুপ্তপূর্ণ পদে— খান আলতাফ হোসেন ভুলু

এখনই সময় ডেস্ক / ৬২
আপডেট : সোমবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ৮:০২ পূর্বাহ্ণ

বঙ্গবন্ধুর খ‌ুনের প‌রে যারা দাত কে‌লি‌য়ে‌ছিল তারাও এখন সংস‌দের গুরুত্বপুর্ন প‌দে

———একান্ত স্বাক্ষাতকা‌রে খান আলতাফ হোসেন ভুলু

এখনই সময় : ১৯৭৫ সা‌লের ১৫ই আগস্ট শেষ রা‌তে বাংলার লৌহমানব স্বা‌ধীনতার স্বপ্নদ্রস্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মু‌জিবুর রহমানসহ তার পরিবার ঘাতকদের নির্মম ব‌ুলে‌টে খ‌ুন হবার প‌রে সেদিন বরিশালে খুনী মোশতাকের পক্ষে মিছিলে যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তাদের মধ্যে একজন এখন সংসদের গুরুত্বপূর্ন পদে বসে দাঁত বের করে হাসেন! খুনিদের পক্ষে অপর এক মিছিলে নেতৃত্ব প্রদানকারীদের একজন এখন পটুয়াখালী জেলার গুরুত্বপূর্ন পদে রয়েছেন। এরা হচ্ছ অওয়ামী লীগের মধ্যে ঘাপটি মেরে থাকা বর্নচোরা। সুযোগ পেলে এরা আবার আসল রূপে আবিরভূত হবে!

অর্ধ শত বছরের রাজনৈতিক জীবন পেরিয়ে আসা বর্নাঢ্য রাজ‌নৈ‌তিক ও আওয়ামীলী‌গের ‌নি‌বে‌দিত প্রাণ কে‌ন্দ্রিয় নেতা ব‌রিশাল জেলা প‌রিষ‌দের সা‌বেক প্রশাসক আ্যাড‌ভো‌কেট খান আলতাফ হোসেন ভুলু একান্ত স্বাক্ষাৎকা‌রে তি‌নি এসব কথা ব‌লেন ।

‌তি‌নি আ‌রো বলেন, , যে ষড়যন্ত্র ঢাকায় কার্যকর করা হয়েছে তার পক্ষে প্রস্তুতি গ্রাসরুট পর্যায়ে সম্প্রসারিত করা হয়েছিলো। সেদিন ভোরে বরিশালে খুনী মোশতাকের পক্ষে মিছিল বের হয়েছিলো বগুরা রোডের পেশকার বাড়ি থেকে। পাঁচ শতাধিক লোকের এ মিছিল পূর্বপ্রস্তুতি ছাড়া বের করা সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেন খান আলতাফ হোসেন ভুলু। এদিকে ষড়যন্ত্র ব্যর্থ হলে নেপথ্য নায়কদের পালিয়ে যবারও প্রস্তুতি ছিলো। ষড়ন্ত্রকারীদের চারজনের একটি গ্রুপ অবস্থন করছিলো ধানমন্ডীর একটি বাসায়। সেখানে ছিলেন শাহ মোয়াজ্জম হোসেন, কে এম ওবায়দুর রহমান, নূরুল ইসলাম মঞ্জু ও ব্যারিস্টার কাম প্লেবয় এক রাজনীতিক। সু-পিতার কু-পুত্র প্লেবয় এ রাজনীতিক ১/১১-এর ষড়যন্ত্রের সঙ্গেও জড়িত ছিলেন; এখনো সে টেলিভিশন টক শোতে জাতিকে জ্ঞান দান করেন!

সেদিন বরিশালের রাজনীতিতে বিভাজন প্রসঙ্গ এক প্রশ্নের জবাবে খান আলতাফ হোসেন ভুলু বলেন, সেদিন বরিশালের ছাত্র ও শ্রমিকরা ছিলো আমির হোসেন আমুর নিয়ন্ত্রনে এবং আওয়ামী লীগ ছিলো নূরুল ইসলাম মঞ্জুর সঙ্গে। এদিকে ন্যাপ থেকে আওয়ামী লীগে যোগদানকারী আবদুর রব সেরনিয়াবাতকে মন্ত্রী করায় বিদ্রোহী হয় নূরুল ইসলাম মঞ্জু গ্রুপ তথা পুরনো আওয়ামী লীগাররা। সব মিলিয়ে সেদিন বরিশালে আওয়ামী রাজনীতির বিভাজন ছিলো স্পষ্ট। যা খন্দকার মোশতাকের পক্ষের লোকদের অপকর্ম সহজ করেছে।

সাক্ষাতকার গ্রহ‌নে: টি এম তু‌হিন ।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: