সোমবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২২, ১২:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :

ঘুরে আসুন অপরুপ সৌন্দর্যের নৈস্বর্গ চর কুকরী মুকরী

এখনই সময় ডেস্ক / ৮৪
আপডেট : বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১, ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ

“চর কুকরি মুকরি”

বাংলাদেশের বরিশাল বিভাগের ভোলা জেলায় অবস্থিত একটি দ্বীপ, এটি ভোলা জেলার সর্ব দক্ষিণে অবস্থিত। ভোলা জেলা শহর থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরের কোলঘেঁষে মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীর মোহনায় এই চরের অবস্থান।চর কুকরি মুকরিতে রয়েছে বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য। চারদিকে জলরাশি দ্বারা বেষ্টিত প্রমত্তা মেঘনার উত্তাল ঢেউয়ে পলি জমতে জমতে এ দ্বীপের জন্ম হয়।“দ্বীপ কন্যা” নামে পরিচিত এই চর কুকরি মুকরি হল ভোলার অন্যতম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত স্থান। প্রকৃতিপ্রেমী যেকোনো পর্যটকের কাছে এখানকার ম্যানগ্রুভ জঙ্গল, সাগর এবং বন্যপ্রাণী নিঃসন্দেহে উপভোগ্য।

চর কুকরি মুকরির অভয়াশ্রমে প্রাণীদের মধ্যে রয়েছে চিত্রা হরিণ, বানর, শিয়াল, উদবিড়াল, বন্য মহিষ-গরু, বন মোরগ, বন-বিড়াল প্রভৃতি। এছাড়া বক, শঙ্খচিল, মথুরা, বন মোরগ, কাঠময়ূর, কোয়েল ইত্যাদি নানান প্রজাতির পাখি ও সরিসৃপ রয়েছে। শীতকালের এই চর কুকরি মুকরিতে বিপুল পরিমানে অতিথি পাখির আগমন ঘটে। এছাড়া কুকরি মুকরি চরের সমুদ্র সৈকত নিরিবিলি ও পরিছন্ন।চর কুকরি মুকরি বুক চিঁড়ে বয়ে যাওয়া ভাড়ানি খাল মেঘনা নদী হয়ে আছড়ে পড়েছে বঙ্গোপসাগরে। চরের বালিয়াড়ি ধরে ঢালচর অতিক্রম করে সামনে এগোলেই বঙ্গোপসাগর। এখানেও কক্সবাজার কিংবা কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের আবহ খুঁজে পাবেন। স্থানীরা এই জায়গাটিকে বালুর ধুম নামে চেনে।

চর কুকরি মুকরির বনভূমিতে স্থান পেয়েছে সুন্দরী, গেওয়া, পশুর, কেওড়া, নারিকেল, বাঁশ ও বেত। বর্তমানে কুকরি মুকরি চরে বনভূমির পরিমাণ ৮৫৬৫ হেক্টর, যার মধ্যে ২১৭ হেক্টর জমি বন্য প্রাণীর অভয়াশ্রম।


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD
%d bloggers like this:
%d bloggers like this: