শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৫৭
আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৩, ৯:৫৯ পূর্বাহ্ণ

বিপিএল ক্রিকেটে নানা চমক থাকছেই। মাঠের পারফরম্যান্স নিয়ে যতটা না আলোচনা হয়েছে, তার চেয়ে ঢের বেশি আলোচনা ছিল মাঠের বাইরের বিষয়ে। তার পরও সব সমালোচনা শেষ করে আজ পর্দা নামতে যাচ্ছে। মিরপুর স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ফাইনালে নামার আগে দেশের উন্নয়নের ছোঁয় গায়ে মাখল আজকের ফাইনালের ট্রফি।

ট্রফি নিয়ে ফটোসেশন হয় মাঠে। বিসিবি সেটি নিয়ে গেল নবনির্মিত মেট্রোরেল স্টেশনে। এই তো কিছুদিন আগেই রাজধানীতে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে মেট্রোরেল। বিপিএল ফাইনালের সোনালি ট্রফি নিয়ে আয়োজকেরা হাজির হয়েছিলেন মেট্রোতে। সেখানে ট্রফি নিয়ে ফটোসেশন অন্য মাত্রার সুবাস ছড়িয়েছে। স্টেশনে ট্রফির পাশে দাঁড়িয়ে ছবি তোলা, মেট্রোতে জানালার পাশে বসে ছবি তোলা হয়েছে। কুমিল্লার অধিনায়ক ইমরুল কায়েস আর সিলেটের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। সিলেটের অধিনায়ক মাশরাফি। তিনি নড়াইলে গেছেন। তার এলাকায় উদ্বোধনী কার্যক্রমে থাকবেন, কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনলাইনে উদ্বোধন করবেন। তার বদলে মুশফিক প্রক্সি দিলেন। তবে ট্রফি নিয়ে মেট্রোতে মুশফিক ও ইমরুল দারুণ হাসিখুশিতেই ছিলেন। ভিন্ন পরিবেশ, ট্রফি নিয়ে কত ফটোসেশনই তো করেছেন। নিজ দেশে এমন আয়োজন হয়নি আগে।

বিপিএলে সেরা সাফল্য রয়েছে সিলেট স্টাইকার্সের অধিনায়ক মাশরাফির মাথায়। চার বার বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন তিনি। প্রথম পাঁচ আসরের মধ্যে চারটিতে অধিনায়ক হিসেবে ট্রফি জয় করেছেন মাশরাফি। ২০১২ ও ২০১৩ সালে বিপিএলের প্রথম দুই আসরে ঢাকা গ্লাডিয়েটর্সের হয়ে, ২০১৫ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স, ২০১৭ সালে রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক হিসেবে চতুর্থ বারের মতো চ্যাম্পিয়ন হন মাশরাফি। এখন পর্যন্ত টুর্নামেন্টের ফাইনালে কখনো হারেননি লড়াকু ক্রিকেটার মাশরাফি।

মঙ্গলবার রাতে রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে জিতে ফাইনাল নিশ্চিত করা সিলেটের অধিনায়ক মাশরাফি সংবাদ সম্মেলনে নানা কথার জবাবে বলেছিলেন, ‘কোনো ম্যাজিকে ফাইনাল খেলছি না। এই জয় এসেছে সবার চেষ্টায়।’ সিলেট রাইডার্সে বড় তারকা নেই। মাশরাফি যেন একাই বৈঠা বাইলেন। এত দূর নিয়ে এসেছেন তার দলকে। মাশরাফি বলেন, ‘আমি এই দলের সবার কাছ থেকে দারুণ সহযোগিতা পেয়েছি। আর এখন পেছনের কথা না বলে ফাইনাল নিয়ে থাকতে চাই। আমরা হারিনি বলে হারব না, হেরে যাব বলে খেলব না, তা ঠিক নয়।’

সিলেটের ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত কাল সংবাদ সম্মেলনে জানালেন, পেছনের দুই বিপিএল ফাইনালে হেরেছিলাম। এবার আরেকটা ফাইনালে সুযোগ পেয়েছি। আমার জন্য বড় সুযোগ এটি। আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ টার্গেট করে এত দূর এসেছি। আজকেও আমাদের কাছে আরেকটি ম্যাচ। ফাইনাল ম্যাচ। জিততে হলে আমাদের ফাইনালে বাড়তি কিছু দেখাতে হবে। আমি বলছি, ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’ শান্ত বললেন, ‘চ্যাম্পিয়ন হলে আমিও কোনো দিন বলতে পারব ট্রফি জয়ে আমিও অংশীদার ছিলাম।’ এই নিয়ে চতুর্থ বার ফাইনালের মঞ্চে কুমিল্লা, গত আসরের চ্যাম্পিয়নও তারা। অন্যদিকে প্রথম বারের মতো ফাইনাল খেলবে সিলেট। ৭ দলের অংশগ্রহণে গত ৬ জানুয়ারি মাঠে গড়িয়েছিল বিপিএলের নবম আসর। এরপর একে একে ৩ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয়েছে ৪৫ ম্যাচ।

ফাইনালের আগে সংগীতায়োজন থাকছে

আজ ফাইনাল মাঠে গড়ানোর আগে সমাপনী অনুষ্ঠানের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে মঞ্চ। দর্শকদের জন্য থাকছে জমকালো আয়োজন। গানে মাতাবেন নগর বাউল, জেমস, ওয়ারফেজ, মাকসুদ ও ঢাকা ব্যান্ড। সঙ্গে বিম শো আর আতশবাজি।

ফাইনালের টিকিট নিয়ে কথা

এদিকে গতকাল থেকেই বিক্রি শুরু হয়েছে ফাইনালের টিকিট। সর্বোচ্চ দাম ধার্য করা হয়েছে ২ হাজার টাকা (গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড)। এছাড়া সব ক্যাটাগরির টিকিটের দাম বাড়ানো হয়েছে। উইকেট থেকে সোজা দুই প্রান্তের ভিআইপি স্ট্যান্ডের টিকিটের দাম ১ হাজার ৫০০ টাকা করা হয়েছে। শহিদ জুয়েল ও শহিদ মুশতাক স্ট্যান্ডের টিকিটের দাম ৮০০ টাকা করা হয়েছে। এদিকে ছাউনিযুক্ত নর্দার্ন ও সাউদার্ন স্ট্যান্ডের টিকিটের মূল্য ৪০০ টাকা করা হয়েছে। ইস্টার্ন স্ট্যান্ডের টিকিটের দাম ধরা হয়েছে ৩০০ টাকা।


এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

Theme Customized By Theme Park BD